মাধুকরী

‘প্রস্তাবনা’

আমি এক শ্রমণ, এক অন্তহীন পথের পথিক, মাধুকরী করতে করতে আমার এই পথ চলা। কত নদী-প্রান্তর পেরিয়ে, কত গ্রাম-কত জনপদের মধ্যে দিয়ে, মন্দিরের ঘন্টাধ্বনি- আজানের সুর শুনতে শুনতে পেরিয়ে এসেছি কতটা পথ। তবুও এগিয়ে চলেছি। কিন্তু কোথায় চলেছি? কি আছে পথের শেষে? জানি না -তবুও থেমে যাওয়ার জো যে নেই। এই পথ চলতে চলতেই কত মানুষের সঙ্গে দেখা, ক্ষণিকের আলাপ, ঘনিষ্টতা- তারপর আবার চলা। এই পথে কত মানুষ, কেউ বা আমায় ফেলে এগিয়ে চলে গেল, কেউ বা পড়ে রইল পেছনে, কেউ গাছের ছায়ায় বসে বিশ্রাম নিচ্ছে, কেউ বা একা, কেউ বা সঙ্গিদের সঙ্গে। এখন সন্ধ্যে – সবাই পান্থশালার দ্বারে। কেউ বা সঙ্গিদের নিয়ে হুল্লড়ে ব্যস্ত। কেউ বা চাটাইয়ে উপর শুয়ে বিশ্রাম নিচ্ছে-ওদের চোখে-মুখে ক্লান্তির ছাপ। ওরা ফেলে আসা পথের স্মৃতি রোমন্থন করছে। টুকরো টুকরো সুখের ছবি পূর্ণিমার চাঁদের মতো উদ্ভাসিত করছে ওদের মুখ। আগামী পথের সুখ কল্পনায় কেউ বা বিভোর। কেউ ফেলে আসা দুঃখস্মৃতিতে কাতর, কেউ বা অনুতপ্ত, আবার কারো মুখ প্রতিহিংসার বাসনায় দৃঢ়। ওরা এখন বিশ্রাম নিচ্ছে। বিশ্রাম নিচ্ছে রাতটুকুর জন্য। সূর্য্যদয়ে আবার জেগে ওঠা- আবার পথ চলা শুরু। আবার সামনের দিকে এগিয়ে চলা। এ পথ যে শুধু এগিয়ে যাওয়ার পথ। পেছনে ফেলে আসা পদচিহ্নের স্মৃতি রোমন্থন করা যায় কিন্তু সেখানে ফিরে যাওয়া যায়না কোনো মতেই। পথের অভিঙ্গতায় মাধুকরীর ঝুলি ক্রমে ক্রমে ভারি হয়ে ওঠে।

এই বাংলা ব্লগের পথে চলতে চলতে ভাই ফয়সালের সঙ্গে ওর ‘স্বপ্নময় জগৎ’ এ দেখা। ওর কথাতেই আমার মাধুকরীর ঝুলির সংগ্রহ সবাইকে ভাগ করে দেব এবার।

Advertisements

11 Responses to মাধুকরী

  1. সৌম বলেছেন:

    সত্যি জীবনটা যদি ফর্মাট করে আবার রি-ইনস্টল করা যেত খুব ভাল হত।

  2. নিবিড় বলেছেন:

    অপেক্ষায় রইলাম

  3. মোশারফ বলেছেন:

    আইডিয়াটা মন্দ নয়। চলার পথে আমরাও সঙ্গি ছিলাম, আমাদের কথাও থাকবে নিশ্চই।

  4. তারা বলেছেন:

    ভাল ভাল ডাইরীই লেখ। কিন্তু বেশ মজা করে লিখবে। যেমন গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ লেখ সে রকম না।

  5. mahmud faisal বলেছেন:

    আমার নাম দেখলাম বলে মনে হচ্ছে!!
    ভাইয়া!! বড্ড ভালো লাগছে… আপনার চমতকার লেখার কাজে উতসাহের কারণ হতে পেরে…
    আপনার লেখাগুলো অনেক জীবনবোধ থেকে হয় দেখেছি… আশা করি আরও সুন্দর লেখা পড়তে পারবো আগামীতে…

    ভালো থাকবেন ভাইয়া! ধন্যবাদ জানাই আরেকবার…
    অফটোপিকঃ আমার নামের বানানটি হলো– ফয়সাল 🙂

    • তাপস বলেছেন:

      হ্যাঁ ভাই তোমার মন্তব্যে সম্বিত ফিরল-ভাবলাম সত্যিইতো শুধুই প্রবন্ধ লেখার তো কথা ছিল না। ধন্যবাদ ভাই। আর হ্যাঁ নামের বানান ঠিক করে দিয়েছি।

মন্তব্য করুন

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s

%d bloggers like this: